অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট শিখুন Kotlin দিয়ে

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট শিখুন
Kotlin দিয়ে

কোডিংয়ের অভিজ্ঞতা থাকুক বা না থাকুক, এ ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম আপনাকে প্রস্তুত করবে বর্তমান সময়ের সেরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট চাকরিগুলোর জন্য। বিস্তারিত জানতে ব্যাচের প্রসপেক্টাস ডাউনলোড করুন 

এই কোর্সের ভেতরে যা যা রয়েছে

এই কোর্সের ভেতরে
যা যা রয়েছে

Commitment

100+ Hours video

Currently Enrolled

131 Students

Mentor support

mentor support

Access On

Real-Life Projects

Language

Code Review & Feedback

Question & Answer

Beginner to Pro

Evaluation

Quizzes & Assignments

Downloadables

Professional Certificate

Access

Duration 6 months

Certificate

2 Years of Content Access

কোর্সের মূল্য

৳৭,০০০
৳৫,৫০০

কী কী শিখবেন এ কোর্স থেকে?

অ্যান্ড্রয়েড পরিচিতি

অ্যান্ড্রয়েড নিয়ে কাজ শুরুর আগে আপনি অ্যান্ড্রয়েডের ইতিহাস নিয়ে জানবেন। এরপর একে একে অ্যান্ড্রয়েড প্রজেক্ট, অ্যান্ড্রয়েড স্টুডিও সেটআপ ও এর বিভিন্ন ফিচার ও ফাইল টাইপ নিয়ে জানবেন।

Kotlin পরিচিতি

এ প্রোগ্রামে অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপমেন্টে আমরা Kotlin ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করেছি। প্রোগ্রামে Kotlin-এর একদম বেসিক থেকে শুরু করে অ্যাডভান্সড লেভেল পর্যন্ত সবকিছু শিখবেন। ভ্যারিয়েবল, লুপ, ইন্টারফেস, ক্লাস, ফাংশনের মতো বেসিক টপিকগুলোর পাশাপাশি জেটপ্যাক কম্পোজ, ডেটা স্টোর, coroutine-এর মতো এডভান্সড টপিকগুলো নিয়েও জানবেন।

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট

কটলিনের বেসিক শিখে আপনি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের জন্য প্রস্তুত হবেন। প্রথমেই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের লাইফসাইকেল নিয়ে ধারণা দেয়া হবে। এরপর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের ভিউ, ফ্র্যাগমেন্ট, ইন্টেন্ট (Intents), অ্যানিমেশন, Threading ও Service, API সবকিছু শিখবেন। আবার বেসিক অ্যান্ড্রয়েড ফিচার যেমন, ক্যামেরা, ম্যাপ, নোটিফিকেশন ইত্যাদি করে দেখানো হবে। অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টে ব্যবহৃত ফায়ারবেইজ (Firebase) নিয়ে ধারণা দেয়া হবে।

ডেটাবেইজ

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টে ইউজার ডেটা এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংগ্রহে ডেটাবেইজের প্রয়োজন হয়। এ প্রোগ্রামে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টে ব্যবহৃত SQLite ও Room ডেটাবেইজ ব্যবহার করে দেখানো হবে।

গিট

ডেভেলপার হিসেবে প্রফেশনালি কাজ করতে গেলে একই প্রজেক্টে অন্য ডেভেলপারদের সাথে আপনার কাজ করতে হবে। আর কোলাবোরেশনের জন্য ডেভেলপারদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় টুল হলো গিট। তাই প্রোগ্রামের শেষের দিকে গিট কমান্ড এবং গিটহাব নিয়ে আপনাদের পরিপূর্ণ ধারণা দেয়া হবে।

প্রোগ্রামটি কাদের জন্য?

যারা দেশী-বিদেশী সফটওয়্যার কোম্পানি ও আইটি ফার্মগুলোতে কিংবা কোনো কোম্পানির প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট টিমে কাজ করতে চান।

অথবা, বিভিন্ন অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কিংবা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট হিসেবে কাজ করতে চান।

সম্পূর্ণ বিগিনাররাও পারবে?

সম্পূর্ণ বিগিনাররাও এই প্রোগ্রামে যুক্ত হয়ে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট শিখতে পারবেন।

আপনি যদি কম্পিউটার বিজ্ঞান ব্যাকগ্রাউন্ডের নাও হোন, তবুও এই প্রোগ্রামে অংশ নিতে পারবেন!

আর কী কী লাগবে?

কোর্সে Kotlin প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের উপর বেসিক থেকে অ্যাডভান্সড লেভেলের ট্রেনিং দেয়া হবে। পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের প্রতিটি ধাপ শিখতে পারবেন। তাই প্রোগ্রামটির জন্য প্রোগ্রামিং নিয়ে খুব বেশি জানার প্রয়োজন নেই।

ছয় মাসের প্রোগ্রামে আপনি কী কী শিখবেন?

প্রোগ্রামের ডেমো ভিডিও

আপনি যেন প্রোগ্রামে রেজিস্ট্রেশনের আগে এর কন্টেন্ট কোয়ালিটি যাচাই করতে পারেন, তার জন্য কোর্সটির ১০টি ভিডিও ফ্রিতে দেখতে পারেন। পুরো প্রোগ্রামের কন্টেন্ট লিস্ট দেখার জন্য সিলেবাস ডাউনলোড করে ফেলুন।

বহুব্রীহির ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম এতো স্পেশাল কেনো?

এ প্রোগ্রামে এমন কিছু সুবিধা আপনি পাবেন, যেগুলো রেগুলার অনলাইন বা অফলাইন কোর্সে এতো ডেডিকেটেডভাবে দেয়া সম্ভব হয় না। এসব সুবিধা নিশ্চিত করতেই মূলত আমরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ক্যারিয়ার ট্র্যাক চালু করতে যাচ্ছি।

লাইভ মেন্টর সাপোর্ট

একজন প্রফেশনাল অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপার সপ্তাহের ৬ দিন একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য (দিনে চার ঘণ্টা করে) অনলাইনে থাকবেন আপনার বিভিন্ন সমস্যা ও প্রশ্নের উত্তর দেয়ার জন্য। এই নির্ধারিত Support Hour এর মধ্যে ডিসকাশন ফোরামে পোস্ট করলে সাথে সাথেই সাপোর্ট পেয়ে যাবেন। আর এই সময়ের বাইরে পোস্ট করলে, মেন্টর পরবর্তী দিনের Support Hour এ এসে রিপ্লাই দিবেন।

Kotlin-বেইজড অ্যাপ প্রজেক্ট

এ প্রোগ্রামে  আপনি Kotlin-বেইজড অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের পুরো প্রক্রিয়া সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা পাবেন। যেমন, ইকমার্স অ্যাপ।

ম্যানুয়াল প্রজেক্ট রিভিউ ও পার্সোনাল ফীডব্যাক

পুরো প্রোগ্রামের সব প্রজেক্ট আমরা করে দেখাবো। একই ধরনের প্রজেক্ট আপনাকে কমপ্লিট করতে হবে। কমপ্লিট করে সেই প্রজেক্টগুলো এসাইনমেন্ট হিসেবে সাবমিট করবেন আপনি। ছয় মাসের মধ্যে অ্যাসাইনমেন্টগুলো সাবমিট করলে প্রতিটি এসাইনমেন্ট আমরা ম্যানুয়ালি রিভিউ করবো, প্রতিটির জন্যেই ইমেইলের মাধ্যমে পার্সোনাল ফীডব্যাক জানিয়ে দিবো। রিভিউ এর পর Passing Score তুলতে পারলে প্রতিটি অ্যাসাইনমেন্টের জন্য আলাদা সার্টিফিকেট পাবেন। এছাড়া কনসেপ্ট যাচাই করে নেয়ার জন্য প্রতিটি লেসনের শেষে কুইজ তো থাকবেই। এই কুইজ এবং অ্যাসাইনমেন্টের আলাদা আলাদা স্কোরগুলো কোর্সের শেষের ফাইনাল রেজাল্টে একত্রে প্রতিফলিত হবে।

প্রফেশনাল ব্র্যান্ডিং সেশন

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হিসাবে সাফল্য পেতে আপনার নিজের ব্র্যান্ডিং করাও গুরুত্বপূর্ণ। তাই প্রোগ্রামের শেষ দিকে একটি সেশন আয়োজন করবো আমরা। এতে যেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে, তার মধ্যে রয়েছে:

  • কীভাবে রেজ্যুমে বানাবেন
  • GitHub, পোর্টফোলিও, আর লিংকডইনের মাধ্যমে নিজের কাজকে কীভাবে অন্যদের কাছে তুলে ধরবেন
  • অন্য অ্যাপ ডেভেলপারদের সাথে নেটওয়ার্কিংয়ের উপায়

জব ও ইন্টারভিউ প্রস্তুতি

অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের মতো চ্যালেঞ্জিং একটি ফিল্ডে আপনি যেন আত্মবিশ্বাসের সাথে কাজ পেতে পারেন, তার জন্য প্রোগ্রামের শেষ দিকে একটি সেশন রাখবো আমরা। এখানে আপনি জানবেন:

  • বিভিন্ন কোম্পানিতে অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া
  • অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরি কীভাবে খুঁজবেন ও এর জন্য প্রস্তুতি নেবেন
  • অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির ইন্টারভিউতে কেমন টেকনিক্যাল ও ননটেকনিক্যাল প্রশ্ন করা হয় এবং সেগুলোর ভালো উত্তর কীভাবে দেবেন
  • অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির জন্য নিজের পোর্টফোলিও বানানোর উপায়

ইন্টার্নশিপের সম্ভাবনা

ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রামে যাদের পারফরম্যান্স সবচেয়ে ভালো হবে, তাদের রেজ্যুমেগুলো আমাদের বিভিন্ন পার্টনার কোম্পানিতে পাঠিয়ে দেবো আমরা।খেয়াল রাখুন যে, আমরা চাকরি বা ইন্টার্নশিপের সুযোগ দেবার নিশ্চয়তা দিচ্ছি না। ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম থেকে পাঠানো রেজ্যুমেগুলো রিভিউ করে এ ব্যাপারে নিজস্ব সিদ্ধান্ত দেবে আমাদের পার্টনার কোম্পানিগুলো।

ফ্রিল্যান্সিং গাইডলাইন

ফ্রিল্যান্সিংকে মাথায় রেখে আমরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম চালু করছি না। কিন্তু আপনি যদি আমাদের প্রতিটি কোর্স মডিউল ও প্রজেক্ট ভালোভাবে শেষ করেন, তাহলে যে দক্ষতা আর আত্মবিশ্বাস অর্জন করবেন, তা আপনাকে যেকোনো জায়গায় কাজ করতে সাহস দেবে – এ কথা আমরা নির্দ্বিধায় বলতে পারি।

প্রোগ্রাম শুরুর পর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষার্থী অনুরোধ করলে আমরা ১টি লাইভ সেশন আয়োজন করবো ফ্রিল্যান্সিংয়ের গাইডলাইন নিয়ে।

Frequently answered questions

যেহেতু বর্তমান সময়ে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের জন্য Kotlin-এর ব্যবহার সবচেয়ে বেশি, তাই প্রোগ্রামে এর উপর জোর দেয়া হয়েছে।

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টে যেহেতু Java খুব গুরুত্বপূর্ণ, সেহেতু এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজটির উপরও আলাদা একটি কোর্স রয়েছে প্রোগ্রামে।

সিলেবাস পাওয়ার জন্য নিচের ফর্মটি ফিলআপ করুন।

এ ক্যারিয়ার ট্র্যাক মূলত Kotlin নির্ভর। কিন্তু অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের জন্য যেহেতু Java একটা দরকারি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ, এ প্রোগ্রামেই আপনাকে এটি শেখানো হবে। এর জন্য ‘Introductory Java Programming‘ নামের আলাদা একটি কোর্স রাখা হয়েছে এ প্রোগ্রামে।

আগেভাগে Java জানার দরকার নেই। আপনি যেন একেবারে শুরু থেকে Java-সহ শিখতে পারেন, তার জন্য এ প্রোগ্রামে ‘Introductory Java Programming‘ নামের পুরো একটি আলাদা কোর্স রাখা হয়েছে।

কোর্সে Kotlin প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের উপর বেসিক থেকে অ্যাডভান্সড লেভেলের ট্রেনিং দেয়া হবে। পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের প্রতিটি ধাপ শিখতে পারবেন।

দ্বিতীয় প্রোগ্রামের আপডেটেড সিলেবাস পরে আপলোড করা হবে।

অবশ্যই!

এ পেইজে ২টি ডেমো ভিডিও দেয়া যাছে। এগুলো সহ কোর্সটির ১০টি ফ্রি ভিডিও দেখতে পারেন কোয়ালিটি যাচাই করার জন্য। পুরো প্রোগ্রামের কন্টেন্ট লিস্ট জানতে সিলেবাস ডাউনলোড করুন।

মূল প্রোগ্রাম ছয় মাসের। অর্থাৎ প্রজেক্ট রিভিউ, মেন্টর সাপোর্ট, প্রজেক্ট সাবমিশন,  সার্টিফিকেট, ক্যারিয়ার গাইডলাইন, ইন্টার্নশিপ সম্ভাবনা – এই ফীচারগুলো থাকবে প্রথম ছয় মাস।

তবে কোর্স কন্টেন্টগুলো (ভিডিও, কোড, কুইজ) আপনার একাউন্টে ২ বছর পর্যন্ত থাকবে; যাতে প্রয়োজনমত শেখা এবং প্র্যাকটিস করা চালু রাখতে পারেন।

এটি তো আসলে ব্যক্তিবিশেষে আলাদা – কারও কম সময় লাগবে, কারও বেশি সময় লাগবে!

তবে আশা করা যায়ঃ প্রতি সপ্তাহে গড়ে ১৫-২০ ঘণ্টা করে সময় দিলে আপনি চার মাসের মধ্যে পুরো সিলেবাস শিখে এবং প্রজেক্ট সাবমিট করে শেষ করতে পারবেন।

যাতে ক্যারিয়ার ট্র্যাকের পার্টিসিপেন্টরা যথেষ্ট এফোর্ট দিয়ে কাজগুলো শিখে ফেলেন ছয় মাসের মধ্যে। আর কনটেন্ট ২ বছরের বেশি না কারণ এগুলো শিখতে এমনিও ২ বছরের বেশি সময় লাগা উচিৎ না।

হ্যাঁ, ছয় মাসেই শেষ করতে হবে। তা না হলে আমাদের পক্ষে প্রজেক্ট রিভিউ ও স্কোর করা সম্ভব হবে না; অর্থাৎ সার্টিফিকেটও দেওয়া হবে না ছয় মাসের পর।

যদিও আপনি চাইলে নিজ উদ্যোগে ছয় মাসের পরও প্রজেক্ট প্র্যাকটিস করতেই পারেন।

আমরা পার্টিসিপেন্টদের নিয়ে একটি ফেসবুক গ্রুপ তৈরি করবো; সেখানে নিজেরা নিজেদের ভিতর সাহায্য চাইতে ও করতে পারবেন। তবে অফিশিয়ালি ছয় মাস পর আমরা ‘মেন্টর সাপোর্ট’ দিবো না। কাজেই সর্বোচ্চ আউটকাম পেতে ছয় মাসের মধ্যেই কোর্স শেষ করার চেষ্টা করতে হবে আপনাদের!

হ্যাঁ, অবশ্যই। কোর্স শেষে সার্টিফিকেট তো থাকছেই। তবে এজন্য ছয় মাসের ভিতর কোর্স শেষ করতে হবে। কারন প্রজেক্ট রিভিউ এর মত ব্যাপার গুলো এই ছয় মাসের পর থাকবে না।

হ্যাঁ, এটি সম্পূর্ণ অনলাইন প্রোগ্রাম, এখানে অংশ নিতে বাসার বাইরে পা ফেলতে হবে না! ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট কানেকশন থাকলেই চলবে।

প্রোগ্রামের ৯০-৯৫% কনটেন্টই Pre-Recorded ভিডিও; এতে করে আপনার সুবিধামত সময়ে ও সুবিধামত গতিতে কোর্সের ম্যাটেরিয়াল দেখে দেখে শিখতে পারবেন।

Pre-Recorded Video ছাড়াও প্রতি দুই সপ্তাহে একটি করে লাইভ আড্ডা হবে; এবং শেষের দিকে ক্যারিয়ার রিলেটেড কিছু লাইভ সেশন হবে।

আপনি রেজিস্টার করার সাথে সাথে কোর্সের সবগুলো ম্যাটেরিয়াল একসাথে আপনার একাউন্টে চলে আসবে। ম্যাটেরিয়াল বলতে ভিডিও, সোর্স কোড, কুইজ, এসাইনমেন্ট – সব চলে আসবে সাথে সাথেই। আপনার যখন যে সেকশন ইচ্ছা দেখতে পারবেন, যখন যে এসাইনমেন্ট ইচ্ছা সাবমিট করতে পারবেন। লাইভ ক্লাস না হওয়ায় এবং সব ম্যাটেরিয়ালস একসাথে পেয়ে যাওয়ায় আপনি আপনার ফ্লেক্সিবিলিটি অনুযায়ী কোর্স করতে থাকবেন।

আপনি যদি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হতে চান, তবে এই প্রোগ্রাম আপনার জন্য। এই প্রোগ্রামের যেসব ফিচার এবং সুবিধা রয়েছে, সেগুলো আপনাকে যেকোনো ধরনের ওয়েব এপ্লিকেশনের পুরোটা তৈরির কনফিডেন্স দিবে এবং আপনাকে একজন প্রফেশনাল অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হতে সাহায্য করবে।

নির্দিষ্ট কোন ডিগ্রি Requirement নেই। তবে, কমপক্ষে এইচ,এস,সি, বা সমমানের যোগ্যতা থাকা উচিত। STEM (Science, Technology, Engineering, Mathematics) ব্যাকগ্রাউন্ডের কেউ হলে সহজেই এই কোর্স করতে পারবে। এছাড়া, নন-টেকনিকাল যেমন কমার্স কিংবা আর্টস ব্যাকগ্রাউন্ডের মানুষরাও এই কোর্স করতে পারবে। তবে, কিছু বেসিক বিষয় জানতে হবে; যেমন – Basic Algebra সম্পর্কে ভাল ধারণা থাকা, কম্পিউটার চালানোয় এবং ইন্টারনেট ব্রাউজার ব্যবহারে Comfortable হতে হবে। এছাড়া গুগলে সার্চ করে কোনো টপিক ঘেঁটে দেখার মত অভ্যাস থাকা উচিৎ।

কোর্সটি বিগিনারদের জন্য। তাই কোডিং না পারলেও সমস্যা নেই। এখানে প্রয়োজনীয় কোডিং শেখানো হবে। ওয়েব ডিজাইন নিয়ে হাল্কা ধারণা থাকলে ভাল, তবে না থাকলেও চলবে।

যেভাবে কন্টেন্ট সাজানো আছে, ঐ সিরিয়ালে কোর্স করলেই ভাল। তবে আপনি যেকোন সময় যেকোন অংশ এক্সেস করতেই পারেন।

যদি কোর্সের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সব শেষ করতে পারেন, তাহলে অবশ্যই পারবেন। কোর্সে অনেক গুলো প্রজেক্ট থাকবে, যেগুলো আপনি নিজের CV/Resume/Porfolio তে যোগ করতে পারবেন। অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হিসেবে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক কোম্পানিগুলোতে কিভাবে নিয়োগ দেয়া হয়; তার জন্য কিভাবে প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কোথায় প্র্যাকটিস করা উচিৎ, কিরকম পোর্টফোলিও থাকা উচিৎ, কিভাবে জব খুঁজে এপ্লাই করা উচিৎ, ইন্টারভিউতে কি ধরনের প্রশ্ন করা হয়, তার জন্য কি কি প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কোম্পানিগুলো ঠিক কি কি ক্রাইটেরিয়া দেখে ডেভেলপার নিয়োগ করে, সেই ক্রাইটেরিয়াগুলো কিভাবে পূরণ করা উচিৎ – মোট কথা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপারের জব পাওয়ার জন্য যা কিছু প্রয়োজন তার সবকিছু নিয়ে আমরা গাইডলাইন দিবো প্রোগ্রামের শেষ দিকের একটি সেশনে।

মূলত অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির জন্য প্রস্তুত হবেন।

ফ্রিল্যান্সিংকে মাথায় রেখে আমরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম বানাই নি। কিন্তু আপনি যদি আমাদের প্রতিটি কোর্স মডিউল ও প্রজেক্ট ভালোভাবে শেষ করেন, তাহলে যে দক্ষতা আর আত্মবিশ্বাস অর্জন করবেন, তা আপনাকে যেকোনো জায়গায় কাজ করতে সাহস দেবে – এ কথা আমরা নির্দ্বিধায় বলতে পারি।

প্রোগ্রাম শুরুর পর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষার্থী অনুরোধ করলে আমরা ১টি লাইভ সেশন আয়োজন করবো ফ্রিল্যান্সিংয়ের গাইডলাইন নিয়ে।

 

১০,০০০ টাকা দামের এ কোর্সটি ৭,০০০ টাকায় পাবার জন্য ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখেই রেজিস্ট্রেশন করার চেষ্টা করুন। স্পেশাল ডিসকাউন্টের অফার পাবার জন্য সাবস্ক্রাইব করুন।

বিকাশ, রকেট, নগদ, যেকোনো ব্যাংকের ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডসহ দেশের প্রচলিত প্রায় যেকোনো সিস্টেমেই পেমেন্ট করা যাবে।

১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ – ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখের মধ্যে প্রোগ্রামে এনরোল করার জন্য REGISTER NOW বাটনে ক্লিক করে চেকাউট পেইজে যান; গিয়ে আপনার একাউন্টের ইনফো দিয়ে PLACE ORDER বাটনে ক্লিক করুন। পরবর্তী পেইজে পেমেন্টের বিস্তারিত গাইডলাইন দেয়া থাকবে, সেগুলো ফলো করে ২ মিনিটের মধ্যে রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট করে ফেলতে পারবেন।

ক্যারিয়ার ট্র্যাকের রেজিস্ট্রেশন ফী এর ক্ষেত্রে আমরা কোনো Refund অপশন রাখছি না। প্রয়োজনে আপনি বিস্তারিত সিলেবাস ও অনেকগুলো ডেমো ভিডিও  দেখে, এমনকি আমাদের অন্যান্য ফ্রী কোর্সে এনরোল করে আমাদের কোয়ালিটি সম্পর্কে ধারণা পেতে পারেন। তবে জটিলতা এড়াতে ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রামের রেজিস্ট্রেশন ফী রিফান্ড করা হবে না।

আপনি যার কাছ থেকে শিখবেন

Sourav Saha Android Career Track Instructor Bohubrihi

Sourav Saha

Software Engineer at RIDMIK LABS

I am Sourav Saha, a passionate Android developer. I graduated from BUET in 2017 and have been working as an Android developer since then. I have worked in different types of Android applications such as social app, e-wallet, restaurant booking, product renting, and so on.

Abdullah Mahmood Android Career Track Instructor Bohubrihi

Abdullah Mahmood

Software Engineer at RIDMIK LABS

Having graduated from Ahsanullah University of Science and Technology, I joined Flora Systems as a fresher 3 years ago. Since then, I have been working in Android development professionally. I am currently working at Ridmik Labs.

এই কোর্সের ভেতরে যা যা রয়েছে

এই কোর্সের ভেতরে
যা যা রয়েছে

100+ Hours video

131 Students

mentor support

Real-Life Projects

Code Review & Feedback

Beginner to Pro

Quizzes & Assignments

Professional Certificate

Duration 6 months

2 Years of Content Access

কোর্সের মূল্য

৳৭,০০০ ৳৫,৫০০

কী কী শিখবেন এ কোর্স থেকে?

অ্যান্ড্রয়েড পরিচিতি

অ্যান্ড্রয়েড নিয়ে কাজ শুরুর আগে আপনি অ্যান্ড্রয়েডের ইতিহাস নিয়ে জানবেন। এরপর একে একে অ্যান্ড্রয়েড প্রজেক্ট, অ্যান্ড্রয়েড স্টুডিও সেটআপ ও এর বিভিন্ন ফিচার ও ফাইল টাইপ নিয়ে জানবেন।

Kotlin পরিচিতি

এ প্রোগ্রামে অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপমেন্টে আমরা Kotlin ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করেছি। প্রোগ্রামে Kotlin-এর একদম বেসিক থেকে শুরু করে অ্যাডভান্সড লেভেল পর্যন্ত সবকিছু শিখবেন। ভ্যারিয়েবল, লুপ, ইন্টারফেস, ক্লাস, ফাংশনের মতো বেসিক টপিকগুলোর পাশাপাশি জেটপ্যাক কম্পোজ, ডেটা স্টোর, coroutine-এর মতো এডভান্সড টপিকগুলো নিয়েও জানবেন।

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট

কটলিনের বেসিক শিখে আপনি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের জন্য প্রস্তুত হবেন। প্রথমেই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের লাইফসাইকেল নিয়ে ধারণা দেয়া হবে। এরপর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের ভিউ, ফ্র্যাগমেন্ট, ইন্টেন্ট (Intents), অ্যানিমেশন, Threading ও Service, API সবকিছু শিখবেন। আবার বেসিক অ্যান্ড্রয়েড ফিচার যেমন, ক্যামেরা, ম্যাপ, নোটিফিকেশন ইত্যাদি করে দেখানো হবে। অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টে ব্যবহৃত ফায়ারবেইজ (Firebase) নিয়ে ধারণা দেয়া হবে।

ডেটাবেইজ

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টে ইউজার ডেটা এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংগ্রহে ডেটাবেইজের প্রয়োজন হয়। এ প্রোগ্রামে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টে ব্যবহৃত SQLite ও Room ডেটাবেইজ ব্যবহার করে দেখানো হবে।

গিট

ডেভেলপার হিসেবে প্রফেশনালি কাজ করতে গেলে একই প্রজেক্টে অন্য ডেভেলপারদের সাথে আপনার কাজ করতে হবে। আর কোলাবোরেশনের জন্য ডেভেলপারদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় টুল হলো গিট। তাই প্রোগ্রামের শেষের দিকে গিট কমান্ড এবং গিটহাব নিয়ে আপনাদের পরিপূর্ণ ধারণা দেয়া হবে।

প্রোগ্রামটি কাদের জন্য?

যারা দেশী-বিদেশী সফটওয়্যার কোম্পানি ও আইটি ফার্মগুলোতে কিংবা কোনো কোম্পানির প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট টিমে কাজ করতে চান।

অথবা, বিভিন্ন অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কিংবা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট হিসেবে কাজ করতে চান।

সম্পূর্ণ বিগিনাররাও পারবে?

সম্পূর্ণ বিগিনাররাও এই প্রোগ্রামে যুক্ত হয়ে ফুল অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট শিখতে পারবেন।

আপনি যদি কম্পিউটার বিজ্ঞান ব্যাকগ্রাউন্ডের নাও হোন, তবুও এই প্রোগ্রামে অংশ নিতে পারবেন!

আর কী কী লাগবে?

কোর্সে Kotlin প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের উপর বেসিক থেকে অ্যাডভান্সড লেভেলের ট্রেনিং দেয়া হবে। পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের প্রতিটি ধাপ শিখতে পারবেন। তাই প্রোগ্রামটির জন্য প্রোগ্রামিং নিয়ে খুব বেশি জানার প্রয়োজন নেই।

বহুব্রীহির ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম এত স্পেশাল কেন?

এ প্রোগ্রামে এমন কিছু সুবিধা আপনি পাবেন, যেগুলো রেগুলার অনলাইন বা অফলাইন কোর্সে এতো ডেডিকেটেডভাবে দেয়া সম্ভব হয় না। এসব সুবিধা নিশ্চিত করতেই মূলত আমরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ক্যারিয়ার ট্র্যাক চালু করতে যাচ্ছি।

লাইভ মেন্টর সাপোর্ট

একজন প্রফেশনাল অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপার সপ্তাহের ৬ দিন একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য (দিনে চার ঘণ্টা করে) অনলাইনে থাকবেন আপনার বিভিন্ন সমস্যা ও প্রশ্নের উত্তর দেয়ার জন্য। এই নির্ধারিত Support Hour এর মধ্যে ডিসকাশন ফোরামে পোস্ট করলে সাথে সাথেই সাপোর্ট পেয়ে যাবেন। আর এই সময়ের বাইরে পোস্ট করলে, মেন্টর পরবর্তী দিনের Support Hour এ এসে রিপ্লাই দিবেন।

Kotlin-বেইজড অ্যাপ প্রজেক্ট

এ প্রোগ্রামে  আপনি Kotlin-বেইজড অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের পুরো প্রক্রিয়া সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা পাবেন। যেমন, ইকমার্স অ্যাপ।

ম্যানুয়াল প্রজেক্ট রিভিউ ও পার্সোনাল ফীডব্যাক

পুরো প্রোগ্রামের সব প্রজেক্ট আমরা করে দেখাবো। একই ধরনের প্রজেক্ট আপনাকে কমপ্লিট করতে হবে। কমপ্লিট করে সেই প্রজেক্টগুলো এসাইনমেন্ট হিসেবে সাবমিট করবেন আপনি। ছয় মাসের মধ্যে অ্যাসাইনমেন্টগুলো সাবমিট করলে প্রতিটি এসাইনমেন্ট আমরা ম্যানুয়ালি রিভিউ করবো, প্রতিটির জন্যেই ইমেইলের মাধ্যমে পার্সোনাল ফীডব্যাক জানিয়ে দিবো। রিভিউ এর পর Passing Score তুলতে পারলে প্রতিটি অ্যাসাইনমেন্টের জন্য আলাদা সার্টিফিকেট পাবেন। এছাড়া কনসেপ্ট যাচাই করে নেয়ার জন্য প্রতিটি লেসনের শেষে কুইজ তো থাকবেই। এই কুইজ এবং অ্যাসাইনমেন্টের আলাদা আলাদা স্কোরগুলো কোর্সের শেষের ফাইনাল রেজাল্টে একত্রে প্রতিফলিত হবে।

প্রফেশনাল ব্র্যান্ডিং সেশন

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হিসাবে সাফল্য পেতে আপনার নিজের ব্র্যান্ডিং করাও গুরুত্বপূর্ণ। তাই প্রোগ্রামের শেষ দিকে একটি সেশন আয়োজন করবো আমরা। এতে যেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে, তার মধ্যে রয়েছে:

কীভাবে রেজ্যুমে বানাবেন
GitHub, পোর্টফোলিও, আর লিংকডইনের মাধ্যমে নিজের কাজকে কীভাবে অন্যদের কাছে তুলে ধরবেন
অন্য অ্যাপ ডেভেলপারদের সাথে নেটওয়ার্কিংয়ের উপায়

জব ও ইন্টারভিউ প্রস্তুতি

অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের মতো চ্যালেঞ্জিং একটি ফিল্ডে আপনি যেন আত্মবিশ্বাসের সাথে কাজ পেতে পারেন, তার জন্য প্রোগ্রামের শেষ দিকে একটি সেশন রাখবো আমরা। এখানে আপনি জানবেন:

  • বিভিন্ন কোম্পানিতে অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া
  • অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরি কীভাবে খুঁজবেন ও এর জন্য প্রস্তুতি নেবেন
  • অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির ইন্টারভিউতে কেমন টেকনিক্যাল ও ননটেকনিক্যাল প্রশ্ন করা হয় এবং সেগুলোর ভালো উত্তর কীভাবে দেবেন
  • অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির জন্য নিজের পোর্টফোলিও বানানোর উপায়

ইন্টার্নশিপের সম্ভাবনা

ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রামে যাদের পারফরম্যান্স সবচেয়ে ভালো হবে, তাদের রেজ্যুমেগুলো আমাদের বিভিন্ন পার্টনার কোম্পানিতে পাঠিয়ে দেবো আমরা।খেয়াল রাখুন যে, আমরা চাকরি বা ইন্টার্নশিপের সুযোগ দেবার নিশ্চয়তা দিচ্ছি না। ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম থেকে পাঠানো রেজ্যুমেগুলো রিভিউ করে এ ব্যাপারে নিজস্ব সিদ্ধান্ত দেবে আমাদের পার্টনার কোম্পানিগুলো।

ফ্রিল্যান্সিং গাইডলাইন

ফ্রিল্যান্সিংকে মাথায় রেখে আমরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম চালু করছি না। কিন্তু আপনি যদি আমাদের প্রতিটি কোর্স মডিউল ও প্রজেক্ট ভালোভাবে শেষ করেন, তাহলে যে দক্ষতা আর আত্মবিশ্বাস অর্জন করবেন, তা আপনাকে যেকোনো জায়গায় কাজ করতে সাহস দেবে – এ কথা আমরা নির্দ্বিধায় বলতে পারি।

প্রোগ্রাম শুরুর পর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষার্থী অনুরোধ করলে আমরা ১টি লাইভ সেশন আয়োজন করবো ফ্রিল্যান্সিংয়ের গাইডলাইন নিয়ে।

Frequently answered questions

যেহেতু বর্তমান সময়ে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের জন্য Kotlin-এর ব্যবহার সবচেয়ে বেশি, তাই প্রোগ্রামে এর উপর জোর দেয়া হয়েছে।

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টে যেহেতু Java খুব গুরুত্বপূর্ণ, সেহেতু এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজটির উপরও আলাদা একটি কোর্স রয়েছে প্রোগ্রামে।

সিলেবাস পাওয়ার জন্য নিচের ফর্মটি ফিলআপ করুন।

এ ক্যারিয়ার ট্র্যাক মূলত Kotlin নির্ভর। কিন্তু অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের জন্য যেহেতু Java একটা দরকারি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ, এ প্রোগ্রামেই আপনাকে এটি শেখানো হবে। এর জন্য ‘Introductory Java Programming‘ নামের আলাদা একটি কোর্স রাখা হয়েছে এ প্রোগ্রামে।

আগেভাগে Java জানার দরকার নেই। আপনি যেন একেবারে শুরু থেকে Java-সহ শিখতে পারেন, তার জন্য এ প্রোগ্রামে ‘Introductory Java Programming‘ নামের পুরো একটি আলাদা কোর্স রাখা হয়েছে।

কোর্সে Kotlin প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের উপর বেসিক থেকে অ্যাডভান্সড লেভেলের ট্রেনিং দেয়া হবে। পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের প্রতিটি ধাপ শিখতে পারবেন।

দ্বিতীয় প্রোগ্রামের আপডেটেড সিলেবাস পরে আপলোড করা হবে।

অবশ্যই!

এ পেইজে ২টি ডেমো ভিডিও দেয়া যাছে। এগুলো সহ কোর্সটির ১০টি ফ্রি ভিডিও দেখতে পারেন কোয়ালিটি যাচাই করার জন্য। পুরো প্রোগ্রামের কন্টেন্ট লিস্ট জানতে সিলেবাস ডাউনলোড করুন।

মূল প্রোগ্রাম ছয় মাসের। অর্থাৎ প্রজেক্ট রিভিউ, মেন্টর সাপোর্ট, প্রজেক্ট সাবমিশন, সার্টিফিকেট, ক্যারিয়ার গাইডলাইন, ইন্টার্নশিপ সম্ভাবনা – এই ফীচারগুলো থাকবে প্রথম ছয় মাস।

তবে কোর্স কন্টেন্টগুলো (ভিডিও, কোড, কুইজ) আপনার একাউন্টে ২ বছর পর্যন্ত থাকবে; যাতে প্রয়োজনমত শেখা এবং প্র্যাকটিস করা চালু রাখতে পারেন।

এটি তো আসলে ব্যক্তিবিশেষে আলাদা – কারও কম সময় লাগবে, কারও বেশি সময় লাগবে!

তবে আশা করা যায়ঃ প্রতি সপ্তাহে গড়ে ১৫-২০ ঘণ্টা করে সময় দিলে আপনি চার মাসের মধ্যে পুরো সিলেবাস শিখে এবং প্রজেক্ট সাবমিট করে শেষ করতে পারবেন।

যাতে ক্যারিয়ার ট্র্যাকের পার্টিসিপেন্টরা যথেষ্ট এফোর্ট দিয়ে কাজগুলো শিখে ফেলেন ছয় মাসের মধ্যে। আর কনটেন্ট ২ বছরের বেশি না কারণ এগুলো শিখতে এমনিও ২ বছরের বেশি সময় লাগা উচিৎ না।

হ্যাঁ, ছয় মাসেই শেষ করতে হবে। তা না হলে আমাদের পক্ষে প্রজেক্ট রিভিউ ও স্কোর করা সম্ভব হবে না; অর্থাৎ সার্টিফিকেটও দেওয়া হবে না ছয় মাসের পর।

যদিও আপনি চাইলে নিজ উদ্যোগে ছয় মাসের পরও প্রজেক্ট প্র্যাকটিস করতেই পারেন।

আমরা পার্টিসিপেন্টদের নিয়ে একটি ফেসবুক গ্রুপ তৈরি করবো; সেখানে নিজেরা নিজেদের ভিতর সাহায্য চাইতে ও করতে পারবেন। তবে অফিশিয়ালি ছয় মাস পর আমরা ‘মেন্টর সাপোর্ট’ দিবো না। কাজেই সর্বোচ্চ আউটকাম পেতে ছয় মাসের মধ্যেই কোর্স শেষ করার চেষ্টা করতে হবে আপনাদের!

হ্যাঁ, অবশ্যই। কোর্স শেষে সার্টিফিকেট তো থাকছেই। তবে এজন্য ছয় মাসের ভিতর কোর্স শেষ করতে হবে। কারন প্রজেক্ট রিভিউ এর মত ব্যাপার গুলো এই ছয় মাসের পর থাকবে না।

হ্যাঁ, এটি সম্পূর্ণ অনলাইন প্রোগ্রাম, এখানে অংশ নিতে বাসার বাইরে পা ফেলতে হবে না! ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট কানেকশন থাকলেই চলবে।

প্রোগ্রামের ৯০-৯৫% কনটেন্টই Pre-Recorded ভিডিও; এতে করে আপনার সুবিধামত সময়ে ও সুবিধামত গতিতে কোর্সের ম্যাটেরিয়াল দেখে দেখে শিখতে পারবেন।

Pre-Recorded Video ছাড়াও প্রতি দুই সপ্তাহে একটি করে লাইভ আড্ডা হবে; এবং শেষের দিকে ক্যারিয়ার রিলেটেড কিছু লাইভ সেশন হবে।

আপনি রেজিস্টার করার সাথে সাথে কোর্সের সবগুলো ম্যাটেরিয়াল একসাথে আপনার একাউন্টে চলে আসবে। ম্যাটেরিয়াল বলতে ভিডিও, সোর্স কোড, কুইজ, এসাইনমেন্ট – সব চলে আসবে সাথে সাথেই। আপনার যখন যে সেকশন ইচ্ছা দেখতে পারবেন, যখন যে এসাইনমেন্ট ইচ্ছা সাবমিট করতে পারবেন। লাইভ ক্লাস না হওয়ায় এবং সব ম্যাটেরিয়ালস একসাথে পেয়ে যাওয়ায় আপনি আপনার ফ্লেক্সিবিলিটি অনুযায়ী কোর্স করতে থাকবেন।

আপনি যদি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হতে চান, তবে এই প্রোগ্রাম আপনার জন্য। এই প্রোগ্রামের যেসব ফিচার এবং সুবিধা রয়েছে, সেগুলো আপনাকে যেকোনো ধরনের ওয়েব এপ্লিকেশনের পুরোটা তৈরির কনফিডেন্স দিবে এবং আপনাকে একজন প্রফেশনাল অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হতে সাহায্য করবে।

নির্দিষ্ট কোন ডিগ্রি Requirement নেই। তবে, কমপক্ষে এইচ,এস,সি, বা সমমানের যোগ্যতা থাকা উচিত। STEM (Science, Technology, Engineering, Mathematics) ব্যাকগ্রাউন্ডের কেউ হলে সহজেই এই কোর্স করতে পারবে। এছাড়া, নন-টেকনিকাল যেমন কমার্স কিংবা আর্টস ব্যাকগ্রাউন্ডের মানুষরাও এই কোর্স করতে পারবে। তবে, কিছু বেসিক বিষয় জানতে হবে; যেমন – Basic Algebra সম্পর্কে ভাল ধারণা থাকা, কম্পিউটার চালানোয় এবং ইন্টারনেট ব্রাউজার ব্যবহারে Comfortable হতে হবে। এছাড়া গুগলে সার্চ করে কোনো টপিক ঘেঁটে দেখার মত অভ্যাস থাকা উচিৎ।

কোর্সটি বিগিনারদের জন্য। তাই কোডিং না পারলেও সমস্যা নেই। এখানে প্রয়োজনীয় কোডিং শেখানো হবে। ওয়েব ডিজাইন নিয়ে হাল্কা ধারণা থাকলে ভাল, তবে না থাকলেও চলবে।

যেভাবে কন্টেন্ট সাজানো আছে, ঐ সিরিয়ালে কোর্স করলেই ভাল। তবে আপনি যেকোন সময় যেকোন অংশ এক্সেস করতেই পারেন।

যদি কোর্সের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সব শেষ করতে পারেন, তাহলে অবশ্যই পারবেন। কোর্সে অনেক গুলো প্রজেক্ট থাকবে, যেগুলো আপনি নিজের CV/Resume/Porfolio তে যোগ করতে পারবেন। অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হিসেবে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক কোম্পানিগুলোতে কিভাবে নিয়োগ দেয়া হয়; তার জন্য কিভাবে প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কোথায় প্র্যাকটিস করা উচিৎ, কিরকম পোর্টফোলিও থাকা উচিৎ, কিভাবে জব খুঁজে এপ্লাই করা উচিৎ, ইন্টারভিউতে কি ধরনের প্রশ্ন করা হয়, তার জন্য কি কি প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কোম্পানিগুলো ঠিক কি কি ক্রাইটেরিয়া দেখে ডেভেলপার নিয়োগ করে, সেই ক্রাইটেরিয়াগুলো কিভাবে পূরণ করা উচিৎ – মোট কথা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপারের জব পাওয়ার জন্য যা কিছু প্রয়োজন তার সবকিছু নিয়ে আমরা গাইডলাইন দিবো প্রোগ্রামের শেষ দিকের একটি সেশনে।

মূলত অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির জন্য প্রস্তুত হবেন।

ফ্রিল্যান্সিংকে মাথায় রেখে আমরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম বানাই নি। কিন্তু আপনি যদি আমাদের প্রতিটি কোর্স মডিউল ও প্রজেক্ট ভালোভাবে শেষ করেন, তাহলে যে দক্ষতা আর আত্মবিশ্বাস অর্জন করবেন, তা আপনাকে যেকোনো জায়গায় কাজ করতে সাহস দেবে – এ কথা আমরা নির্দ্বিধায় বলতে পারি।

প্রোগ্রাম শুরুর পর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষার্থী অনুরোধ করলে আমরা ১টি লাইভ সেশন আয়োজন করবো ফ্রিল্যান্সিংয়ের গাইডলাইন নিয়ে।

 

১০,০০০ টাকা দামের এ কোর্সটি ৭,০০০ টাকায় পাবার জন্য ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখেই রেজিস্ট্রেশন করার চেষ্টা করুন। স্পেশাল ডিসকাউন্টের অফার পাবার জন্য সাবস্ক্রাইব করুন।

বিকাশ, রকেট, নগদ, যেকোনো ব্যাংকের ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডসহ দেশের প্রচলিত প্রায় যেকোনো সিস্টেমেই পেমেন্ট করা যাবে।

১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ – ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখের মধ্যে প্রোগ্রামে এনরোল করার জন্য REGISTER NOW বাটনে ক্লিক করে চেকাউট পেইজে যান; গিয়ে আপনার একাউন্টের ইনফো দিয়ে PLACE ORDER বাটনে ক্লিক করুন। পরবর্তী পেইজে পেমেন্টের বিস্তারিত গাইডলাইন দেয়া থাকবে, সেগুলো ফলো করে ২ মিনিটের মধ্যে রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট করে ফেলতে পারবেন।

ক্যারিয়ার ট্র্যাকের রেজিস্ট্রেশন ফী এর ক্ষেত্রে আমরা কোনো Refund অপশন রাখছি না। প্রয়োজনে আপনি বিস্তারিত সিলেবাস ও অনেকগুলো ডেমো ভিডিও  দেখে, এমনকি আমাদের অন্যান্য ফ্রী কোর্সে এনরোল করে আমাদের কোয়ালিটি সম্পর্কে ধারণা পেতে পারেন। তবে জটিলতা এড়াতে ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রামের রেজিস্ট্রেশন ফী রিফান্ড করা হবে না।

আপনি যার কাছ থেকে শিখবেন

Sourav Saha Android Career Track Instructor Bohubrihi

Sourav Saha

Software Engineer at RIDMIK Labs

I am Sourav Saha, a passionate Android developer. I graduated from BUET in 2017 and have been working as an Android developer since then. I have worked in different types of Android applications such as social app, e-wallet, restaurant booking, product renting, and so on.

Abdullah Mahmood Android Career Track Instructor Bohubrihi

Abdullah Mahmood

Software Engineer at Ridmik Labs

Having graduated from Ahsanullah University of Science and Technology, I joined Flora Systems as a fresher 3 years ago. Since then, I have been working in Android development professionally. I am currently working at Ridmik Labs.

প্রসপেক্টাস ডাউনলোড করতে নিচের ফর্মটি পূরণ করে জমা দিন

ইকমার্স অ্যাপের মতো রিয়েল-লাইফ অ্যাপ প্রজেক্ট থাকবে এ প্রোগ্রামে। বিস্তারিত জানার জন্য প্রসপেক্টাস ডাউনলোড করে ফেলুন। প্রসপেক্টাস ডাউনলোড করতে নিচের ফর্মটি পূরণ করে সাবমিট করুন। ইমেইলের মাধ্যমে সরাসরি প্রসপেক্টাস ও স্পেশাল অফার প্রোমো কোড পেয়ে যাবেন। 

২য় ব্যাচের রেজিস্ট্রেশন শুরু

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট শিখুন Kotlin দিয়ে

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হিসাবে ক্যারিয়ার গড়ুন বিশেষ এ প্রোগ্রামের মাধ্যমে। কোডিংয়ের অভিজ্ঞতা থাকুক বা না থাকুক, এ ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম আপনাকে প্রস্তুত করবে বর্তমান সময়ের সেরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট চাকরিগুলোর জন্য।

কেন ভর্তি হবেন এ প্রোগ্রামে?

প্রোগ্রামে কী পাচ্ছেন?

প্রোগ্রামের সুবিধা কী কী?

প্রোগ্রামের জন্য কী লাগবে?

ক্যারিয়ার ট্র্যাক শেষ করার পর কোন ক্যারিয়ারে যেতে পারবেন?

অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপার

দেশী-বিদেশী সফটওয়্যার কোম্পানি ও আইটি ফার্মগুলোতে কিংবা কোনো কোম্পানির প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট টিমে

অ্যান্ড্রয়েড ফ্রিল্যান্সিং

বিভিন্ন অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কিংবা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট হিসাবে

২য় ব্যাচের রেজিস্ট্রেশন শুরু

২৯ নভেম্বর (সন্ধ্যা ৬টা)

কোর্স ফি

৳১০,০০০

প্রোগ্রাম সম্পর্কিত আপনার জিজ্ঞাসাগুলোর উত্তর

যেহেতু প্রথমবারের মতো এ ক্যারিয়ার ট্র্যাক চালু করা হচ্ছে, আপনার মনে নানা প্রশ্ন থাকা স্বাভাবিক। সেগুলোর উত্তর আমরা এখানে দেবার চেষ্টা করেছি। নতুন ধরনের প্রশ্ন পেলে আমরা সেগুলো এখানে যোগ করবো।

২য় ব্যাচের রেজিস্ট্রেশন চলছে।

দ্বিতীয় ব্যাচে ভর্তির জন্য ডিসকাউন্টের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে।

যেহেতু বর্তমান সময়ে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের জন্য Kotlin-এর ব্যবহার সবচেয়ে বেশি, তাই প্রোগ্রামে এর উপর জোর দেয়া হয়েছে।

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টে যেহেতু Java খুব গুরুত্বপূর্ণ, সেহেতু এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজটির উপরও আলাদা একটি কোর্স রয়েছে প্রোগ্রামে।

সিলেবাস পাওয়ার জন্য নিচের ফর্মটি ফিলআপ করুন।

এ ক্যারিয়ার ট্র্যাক মূলত Kotlin নির্ভর। কিন্তু অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের জন্য যেহেতু Java একটা দরকারি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ, এ প্রোগ্রামেই আপনাকে এটি শেখানো হবে। এর জন্য ‘Introductory Java Programming‘ নামের আলাদা একটি কোর্স রাখা হয়েছে এ প্রোগ্রামে।

আগেভাগে Java জানার দরকার নেই। আপনি যেন একেবারে শুরু থেকে Java-সহ শিখতে পারেন, তার জন্য এ প্রোগ্রামে ‘Introductory Java Programming‘ নামের পুরো একটি আলাদা কোর্স রাখা হয়েছে।

কোর্সে Kotlin প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের উপর বেসিক থেকে অ্যাডভান্সড লেভেলের ট্রেনিং দেয়া হবে। পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের প্রতিটি ধাপ শিখতে পারবেন।

দ্বিতীয় প্রোগ্রামের আপডেটেড সিলেবাস পরে আপলোড করা হবে।

অবশ্যই!

এ পেইজে ২টি ডেমো ভিডিও দেয়া যাছে। এগুলো সহ কোর্সটির ১০টি ফ্রি ভিডিও দেখতে পারেন কোয়ালিটি যাচাই করার জন্য। পুরো প্রোগ্রামের কন্টেন্ট লিস্ট জানতে সিলেবাস ডাউনলোড করুন।

প্রোগ্রামের ডেমো ভিডিও

আপনি যেন প্রোগ্রামে রেজিস্ট্রেশনের আগে এর কন্টেন্ট কোয়ালিটি যাচাই করতে পারেন, তার জন্য কোর্সটির ১০টি ভিডিও ফ্রিতে দেখতে পারেন। পুরো প্রোগ্রামের কন্টেন্ট লিস্ট দেখার জন্য সিলেবাস ডাউনলোড করে ফেলুন।

Demo Topic: Variables in Kotlin

Demo Topic: Setting up a Firebase Project

বহুব্রীহির ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম এতো স্পেশাল কেনো?

এ প্রোগ্রামে এমন কিছু সুবিধা আপনি পাবেন, যেগুলো রেগুলার অনলাইন বা অফলাইন কোর্সে এতো ডেডিকেটেডভাবে দেয়া সম্ভব হয় না। এসব সুবিধা নিশ্চিত করতেই মূলত আমরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ক্যারিয়ার ট্র্যাক চালু করতে যাচ্ছি।

১। লাইভ মেন্টর সাপোর্ট

একজন প্রফেশনাল অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপার সপ্তাহের ৬ দিন একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য (দিনে চার ঘণ্টা করে) অনলাইনে থাকবেন আপনার বিভিন্ন সমস্যা ও প্রশ্নের উত্তর দেয়ার জন্য। এই নির্ধারিত Support Hour এর মধ্যে ডিসকাশন ফোরামে পোস্ট করলে সাথে সাথেই সাপোর্ট পেয়ে যাবেন। আর এই সময়ের বাইরে পোস্ট করলে, মেন্টর পরবর্তী দিনের Support Hour এ এসে রিপ্লাই দিবেন।

২। Kotlin-বেইজড অ্যাপ প্রজেক্ট

পুরো প্রোগ্রামে এমন কয়েকটি প্রজেক্ট থাকবে, যেগুলো বানানোর মাধ্যমে আপনি Kotlin-বেইজড অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের পুরো প্রক্রিয়া সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা পাবেন। যেমন, ইকমার্স অ্যাপ আর রাইড-শেয়ারিং অ্যাপ।

৩। ম্যানুয়াল প্রজেক্ট রিভিউ ও পার্সোনাল ফীডব্যাক

পুরো প্রোগ্রামের সব প্রজেক্ট আমরা করে দেখাবো। একই ধরনের প্রজেক্ট আপনাকে কমপ্লিট করতে হবে। কমপ্লিট করে সেই প্রজেক্টগুলো এসাইনমেন্ট হিসেবে সাবমিট করবেন আপনি। ছয় মাসের মধ্যে অ্যাসাইনমেন্টগুলো সাবমিট করলে প্রতিটি এসাইনমেন্ট আমরা ম্যানুয়ালি রিভিউ করবো, প্রতিটির জন্যেই ইমেইলের মাধ্যমে পার্সোনাল ফীডব্যাক জানিয়ে দিবো। রিভিউ এর পর Passing Score তুলতে পারলে প্রতিটি অ্যাসাইনমেন্টের জন্য আলাদা সার্টিফিকেট পাবেন। এছাড়া কনসেপ্ট যাচাই করে নেয়ার জন্য প্রতিটি লেসনের শেষে কুইজ তো থাকবেই। এই কুইজ এবং অ্যাসাইনমেন্টের আলাদা আলাদা স্কোরগুলো কোর্সের শেষের ফাইনাল রেজাল্টে একত্রে প্রতিফলিত হবে।

ম্যানুয়াল প্রজেক্ট রিভিউ ও পার্সোনাল ফীডব্যাক - bohubrihi

৪। লাইভ সেশন

প্রতি ২-৩ সপ্তাহ পরপর আমরা লাইভ ভিডিও সেশনের ব্যবস্থা করবো, যেখানে আগের সপ্তাহগুলোতে আপনার অগ্রগতি, সমস্যা আর ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা নিয়ে সরাসরি আলোচনার সুযোগ পাবেন।

কিছুটা ইনফরমাল স্টাইলে আপনাদের সাথে আমাদের ইন্সট্রাক্টর ও মেন্টরের আড্ডা হয়ে যাবে। এসব আড্ডায় মন খুলে যেকোনো কিছু আলোচনা করতে আমরা আপনাকে উৎসাহ দেবো! আমাদের সবার মধ্যে দারুণ একটি প্রফেশনাল নেটওয়ার্কও তৈরি হয়ে যাবে এ সুযোগে!

 

৫। প্রফেশনাল ব্র্যান্ডিং সেশন

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হিসাবে সাফল্য পেতে আপনার নিজের ব্র্যান্ডিং করাও গুরুত্বপূর্ণ। তাই প্রোগ্রামের শেষ দিকে একটি সেশন আয়োজন করবো আমরা। এতে যেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে, তার মধ্যে রয়েছে:

  • কীভাবে রেজ্যুমে বানাবেন
  • GitHub, পোর্টফোলিও, আর লিংকডইনের মাধ্যমে নিজের কাজকে কীভাবে অন্যদের কাছে তুলে ধরবেন
  • অন্য অ্যাপ ডেভেলপারদের সাথে নেটওয়ার্কিংয়ের উপায়

 

৬। জব ও ইন্টারভিউ প্রস্তুতি

অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের মতো চ্যালেঞ্জিং একটি ফিল্ডে আপনি যেন আত্মবিশ্বাসের সাথে কাজ পেতে পারেন, তার জন্য প্রোগ্রামের শেষ দিকে একটি সেশন রাখবো আমরা। এখানে আপনি জানবেন:

  • বিভিন্ন কোম্পানিতে অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া
  • অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরি কীভাবে খুঁজবেন ও এর জন্য প্রস্তুতি নেবেন
  • অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির ইন্টারভিউতে কেমন টেকনিক্যাল ও ননটেকনিক্যাল প্রশ্ন করা হয় এবং সেগুলোর ভালো উত্তর কীভাবে দেবেন
  • অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির জন্য নিজের পোর্টফোলিও বানানোর উপায়

 

৭। ইন্টার্নশিপের সম্ভাবনা

ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রামে যাদের পারফরম্যান্স সবচেয়ে ভালো হবে, তাদের রেজ্যুমেগুলো আমাদের বিভিন্ন পার্টনার কোম্পানিতে পাঠিয়ে দেবো আমরা।

খেয়াল রাখুন যে, আমরা চাকরি বা ইন্টার্নশিপের সুযোগ দেবার নিশ্চয়তা দিচ্ছি না। ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম থেকে পাঠানো রেজ্যুমেগুলো রিভিউ করে এ ব্যাপারে নিজস্ব সিদ্ধান্ত দেবে আমাদের পার্টনার কোম্পানিগুলো।

 

৮। ফ্রিল্যান্সিং গাইডলাইন

ফ্রিল্যান্সিংকে মাথায় রেখে আমরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম চালু করছি না। কিন্তু আপনি যদি আমাদের প্রতিটি কোর্স মডিউল ও প্রজেক্ট ভালোভাবে শেষ করেন, তাহলে যে দক্ষতা আর আত্মবিশ্বাস অর্জন করবেন, তা আপনাকে যেকোনো জায়গায় কাজ করতে সাহস দেবে – এ কথা আমরা নির্দ্বিধায় বলতে পারি।

প্রোগ্রাম শুরুর পর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষার্থী অনুরোধ করলে আমরা ১টি লাইভ সেশন আয়োজন করবো ফ্রিল্যান্সিংয়ের গাইডলাইন নিয়ে।

 

কী কী প্রজেক্ট করা হবে এ প্রোগ্রামে?

ইকমার্স অ্যাপ আর রাইড শেয়ারিংয়ের মতো রিয়েল-লাইফ অ্যাপ প্রজেক্ট থাকবে এ প্রোগ্রামে। বিস্তারিত জানার জন্য সিলেবাস ডাউনলোড করে ফেলুন। ইমেইলের মাধ্যমে সরাসরি সিলেবাস ও স্পেশাল অফার প্রোমো কোড পেয়ে যাবেন।

আরো কিছু প্রশ্ন ও সেগুলোর উত্তর

মূল প্রোগ্রাম ছয় মাসের। অর্থাৎ প্রজেক্ট রিভিউ, মেন্টর সাপোর্ট, প্রজেক্ট সাবমিশন, লাইভ সেশন, সার্টিফিকেট, ক্যারিয়ার গাইডলাইন, ইন্টার্নশিপ সম্ভাবনা – এই ফীচারগুলো থাকবে প্রথম ছয় মাস।

তবে কোর্স কন্টেন্টগুলো (ভিডিও, কোড, কুইজ) আপনার একাউন্টে ২ বছর পর্যন্ত থাকবে; যাতে প্রয়োজনমত শেখা এবং প্র্যাকটিস করা চালু রাখতে পারেন।

এটি তো আসলে ব্যক্তিবিশেষে আলাদা – কারও কম সময় লাগবে, কারও বেশি সময় লাগবে!

তবে আশা করা যায়ঃ প্রতি সপ্তাহে গড়ে ১৫-২০ ঘণ্টা করে সময় দিলে আপনি চার মাসের মধ্যে পুরো সিলেবাস শিখে এবং প্রজেক্ট সাবমিট করে শেষ করতে পারবেন।

যাতে ক্যারিয়ার ট্র্যাকের পার্টিসিপেন্টরা যথেষ্ট এফোর্ট দিয়ে কাজগুলো শিখে ফেলেন ছয় মাসের মধ্যে। আর কনটেন্ট ২ বছরের বেশি না কারণ এগুলো শিখতে এমনিও ২ বছরের বেশি সময় লাগা উচিৎ না।

হ্যাঁ, ছয় মাসেই শেষ করতে হবে। তা না হলে আমাদের পক্ষে প্রজেক্ট রিভিউ ও স্কোর করা সম্ভব হবে না; অর্থাৎ সার্টিফিকেটও দেওয়া হবে না ছয় মাসের পর।

যদিও আপনি চাইলে নিজ উদ্যোগে ছয় মাসের পরও প্রজেক্ট প্র্যাকটিস করতেই পারেন।

আমরা পার্টিসিপেন্টদের নিয়ে একটি ফেসবুক গ্রুপ তৈরি করবো; সেখানে নিজেরা নিজেদের ভিতর সাহায্য চাইতে ও করতে পারবেন। তবে অফিশিয়ালি ছয় মাস পর আমরা ‘মেন্টর সাপোর্ট’ দিবো না। কাজেই সর্বোচ্চ আউটকাম পেতে ছয় মাসের মধ্যেই কোর্স শেষ করার চেষ্টা করতে হবে আপনাদের!

হ্যাঁ, অবশ্যই। কোর্স শেষে সার্টিফিকেট তো থাকছেই। তবে এজন্য ছয় মাসের ভিতর কোর্স শেষ করতে হবে। কারন প্রজেক্ট রিভিউ এর মত ব্যাপার গুলো এই ছয় মাসের পর থাকবে না।

হ্যাঁ, এটি সম্পূর্ণ অনলাইন প্রোগ্রাম, এখানে অংশ নিতে বাসার বাইরে পা ফেলতে হবে না! ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট কানেকশন থাকলেই চলবে।

প্রোগ্রামের ৯০-৯৫% কনটেন্টই Pre-Recorded ভিডিও; এতে করে আপনার সুবিধামত সময়ে ও সুবিধামত গতিতে কোর্সের ম্যাটেরিয়াল দেখে দেখে শিখতে পারবেন।

Pre-Recorded Video ছাড়াও প্রতি দুই সপ্তাহে একটি করে লাইভ আড্ডা হবে; এবং শেষের দিকে ক্যারিয়ার রিলেটেড কিছু লাইভ সেশন হবে।

আপনি রেজিস্টার করার সাথে সাথে কোর্সের সবগুলো ম্যাটেরিয়াল একসাথে আপনার একাউন্টে চলে আসবে। ম্যাটেরিয়াল বলতে ভিডিও, সোর্স কোড, কুইজ, এসাইনমেন্ট – সব চলে আসবে সাথে সাথেই। আপনার যখন যে সেকশন ইচ্ছা দেখতে পারবেন, যখন যে এসাইনমেন্ট ইচ্ছা সাবমিট করতে পারবেন। লাইভ ক্লাস না হওয়ায় এবং সব ম্যাটেরিয়ালস একসাথে পেয়ে যাওয়ায় আপনি আপনার ফ্লেক্সিবিলিটি অনুযায়ী কোর্স করতে থাকবেন।

আপনি যদি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হতে চান, তবে এই প্রোগ্রাম আপনার জন্য। এই প্রোগ্রামের যেসব ফিচার এবং সুবিধা রয়েছে, সেগুলো আপনাকে যেকোনো ধরনের ওয়েব এপ্লিকেশনের পুরোটা তৈরির কনফিডেন্স দিবে এবং আপনাকে একজন প্রফেশনাল অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হতে সাহায্য করবে।

নির্দিষ্ট কোন ডিগ্রি Requirement নেই। তবে, কমপক্ষে এইচ,এস,সি, বা সমমানের যোগ্যতা থাকা উচিত। STEM (Science, Technology, Engineering, Mathematics) ব্যাকগ্রাউন্ডের কেউ হলে সহজেই এই কোর্স করতে পারবে। এছাড়া, নন-টেকনিকাল যেমন কমার্স কিংবা আর্টস ব্যাকগ্রাউন্ডের মানুষরাও এই কোর্স করতে পারবে। তবে, কিছু বেসিক বিষয় জানতে হবে; যেমন – Basic Algebra সম্পর্কে ভাল ধারণা থাকা, কম্পিউটার চালানোয় এবং ইন্টারনেট ব্রাউজার ব্যবহারে Comfortable হতে হবে। এছাড়া গুগলে সার্চ করে কোনো টপিক ঘেঁটে দেখার মত অভ্যাস থাকা উচিৎ।

কোর্সটি বিগিনারদের জন্য। তাই কোডিং না পারলেও সমস্যা নেই। এখানে প্রয়োজনীয় কোডিং শেখানো হবে। ওয়েব ডিজাইন নিয়ে হাল্কা ধারণা থাকলে ভাল, তবে না থাকলেও চলবে।

যেভাবে কন্টেন্ট সাজানো আছে, ঐ সিরিয়ালে কোর্স করলেই ভাল। তবে আপনি যেকোন সময় যেকোন অংশ এক্সেস করতেই পারেন।

যদি কোর্সের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সব শেষ করতে পারেন, তাহলে অবশ্যই পারবেন। কোর্সে অনেক গুলো প্রজেক্ট থাকবে, যেগুলো আপনি নিজের CV/Resume/Porfolio তে যোগ করতে পারবেন। অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপার হিসেবে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক কোম্পানিগুলোতে কিভাবে নিয়োগ দেয়া হয়; তার জন্য কিভাবে প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কোথায় প্র্যাকটিস করা উচিৎ, কিরকম পোর্টফোলিও থাকা উচিৎ, কিভাবে জব খুঁজে এপ্লাই করা উচিৎ, ইন্টারভিউতে কি ধরনের প্রশ্ন করা হয়, তার জন্য কি কি প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কোম্পানিগুলো ঠিক কি কি ক্রাইটেরিয়া দেখে ডেভেলপার নিয়োগ করে, সেই ক্রাইটেরিয়াগুলো কিভাবে পূরণ করা উচিৎ – মোট কথা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপারের জব পাওয়ার জন্য যা কিছু প্রয়োজন তার সবকিছু নিয়ে আমরা গাইডলাইন দিবো প্রোগ্রামের শেষ দিকের একটি সেশনে।

মূলত অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপারের চাকরির জন্য প্রস্তুত হবেন।

ফ্রিল্যান্সিংকে মাথায় রেখে আমরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রাম বানাই নি। কিন্তু আপনি যদি আমাদের প্রতিটি কোর্স মডিউল ও প্রজেক্ট ভালোভাবে শেষ করেন, তাহলে যে দক্ষতা আর আত্মবিশ্বাস অর্জন করবেন, তা আপনাকে যেকোনো জায়গায় কাজ করতে সাহস দেবে – এ কথা আমরা নির্দ্বিধায় বলতে পারি।

প্রোগ্রাম শুরুর পর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষার্থী অনুরোধ করলে আমরা ১টি লাইভ সেশন আয়োজন করবো ফ্রিল্যান্সিংয়ের গাইডলাইন নিয়ে।

 

১০,০০০ টাকা দামের এ কোর্সটি ৭,০০০ টাকায় পাবার জন্য ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখেই রেজিস্ট্রেশন করার চেষ্টা করুন। স্পেশাল ডিসকাউন্টের অফার পাবার জন্য সাবস্ক্রাইব করুন।

বিকাশ, রকেট, নগদ, যেকোনো ব্যাংকের ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডসহ দেশের প্রচলিত প্রায় যেকোনো সিস্টেমেই পেমেন্ট করা যাবে।

১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ – ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখের মধ্যে প্রোগ্রামে এনরোল করার জন্য REGISTER NOW বাটনে ক্লিক করে চেকাউট পেইজে যান; গিয়ে আপনার একাউন্টের ইনফো দিয়ে PLACE ORDER বাটনে ক্লিক করুন। পরবর্তী পেইজে পেমেন্টের বিস্তারিত গাইডলাইন দেয়া থাকবে, সেগুলো ফলো করে ২ মিনিটের মধ্যে রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট করে ফেলতে পারবেন।

ক্যারিয়ার ট্র্যাকের রেজিস্ট্রেশন ফী এর ক্ষেত্রে আমরা কোনো Refund অপশন রাখছি না। প্রয়োজনে আপনি বিস্তারিত সিলেবাস ও অনেকগুলো ডেমো ভিডিও  দেখে, এমনকি আমাদের অন্যান্য ফ্রী কোর্সে এনরোল করে আমাদের কোয়ালিটি সম্পর্কে ধারণা পেতে পারেন। তবে জটিলতা এড়াতে ক্যারিয়ার ট্র্যাক প্রোগ্রামের রেজিস্ট্রেশন ফী রিফান্ড করা হবে না।

এর বাইরে আরও কোনো প্রশ্ন আছে? আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে এখানে ক্লিক করে মেসেঞ্জারে মেসেজ করুন অথবা এখানে ক্লিক করে কনট্যাক্ট ফর্ম ফিলাপ করুন অথবা মেইল করুন এ অ্যাড্রেসে – info@bohubrihi.com!

ইন্সট্রাক্টর ও মেন্টর হিসেবে কারা থাকছেন?

অভিজ্ঞ অ্যাপ ডেভেলপার সৌরভ ভাই আর আব্দুল্লাহ মাহমুদ ভাই মিলে এ প্রোগ্রামটি তৈরি করেছেন। এছাড়া সিলেবাস তৈরি ও ক্যারিয়ার গাইডলাইনের ক্ষেত্রে আমাদের পার্টনার অর্গানাইজেশনগুলোর সাথে মিলে আমরা কাজ করেছি।

Sourav Saha
Latest posts by Sourav Saha (see all)
    Abdullah Mahmood
    Latest posts by Abdullah Mahmood (see all)

      সিলেবাস ডাউনলোড করুন

      নিচের ফর্মটি ফিলাপ করার সাথে সাথে আপনার ইমেইলে আমরা সিলেবাসটি পাঠিয়ে দিবো। এছাড়া পরবর্তী ব্যাচের রেজিস্টেশন শুরু হওয়ার ব্যাপারেও আমরা আপনাকে আপডেটেড রাখবো।